করোনায় ভারতের পরমাণু বিজ্ঞানী শেখর বসুর মৃত্যু

নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ভারতের প্রখ্যাত পরমাণু বিজ্ঞানী ও দেশটির পরমাণু শক্তি কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ড. শেখর বসু।

বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর।

জানা গেছে, বেশ কয়েকদিন ধরে কোভিড-১৯ এর পাশাপাশি কিডনি জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন শেখর বসু। কলকাতার ওই বেসরকারি হাসপাতালেই চলছিল চিকিৎসা। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে একটি মেডিকেল বোর্ডও গঠন করা হয়। কিন্তু ক্রমশনই শারীরিক অবস্থা অবনতি হচ্ছিল তার। রক্তে কমছিল অক্সিজেনের মাত্রা। বৃহস্পতিবার ভোর ৪.৫০ মিনিটের দিকে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

১৯৫২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বিহারের মুজাফ্ফরপুরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। দক্ষিণ কলকাতার গভর্নমেন্ট স্কুল থেকে স্কুলের গন্ডি শেষে মুম্বাইয়ের বীরমাতা জিজাবাই টেকনোলজিকেল ইনস্টিটিউট থেকে মেকানিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করেন শেখর বসু। এরপর যোগ দেন ভাবা অ্যাটোমিক রিসার্চ সেন্টারে। সেখানে দীর্ঘদিন ডিরেক্টরের পদ
ছিলেন তিনি। পরে যোগ দেন পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান পদে। দীর্ঘদিন পরমাণু শক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিবের দায়িত্ব সামলেছেন তিনি।

ভারতের প্রথম পরমাণু শক্তি চালিত সাবমেরিন ‘আইএনএস আরিহান্ত’ এর জন্য পরমাণু চুল্লির নকশা তৈরির ব্যাপারেও বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন তিনি। তার কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৪ সালে তাকে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত করে ভারত সরকার।

এই বিজ্ঞানীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যনার্জি।

দিকদিগন্ত/পিআই

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*